অপেক্ষা



অপেক্ষা

তিন মেয়ে এক ছেলে ,,,,,,,রেল‌ওয়েতে চাকরী করতেন খুব ভালো পদে ছিলেন পরিতোষ বাবু,,,,এক টুকরো মাটি কিনেছিলেন  ,,,,,স্বপ্ন ছিলো যে রির্টায়াড হ‌ওয়ার পর নতুন বাড়ীতে যাবে ,,,,বহু বছর কোয়ার্টারে থেকে আর ভালো লাগছিলো না ,,,,,,,সব সময় বলতেন এবার বাড়ীতে গিয়ে ভালো করে  স্বাস নেবেন সেই জন্য  তাড়াতাড়ি করে বাড়ীর কাজটা শুরু করেছিলেন ,,,,,,,একদিকে বাড়ীর কাজ আরেক দিকে  ছেলেটাও সাইন্সে  গ্রেজুয়েশন করে আর কমপিউটার  কোর্স করেও ভালো চাকুরী না পাওয়াতে টেনশন ছিলো,,,,,, 
মেয়েরা যেমন পরিতোষ বাবুর প্রাণ ছিলো তেমনি ছেলে ছিলো জীবন,,,অত্যন্ত ভালোবাসতেন,,,আজ হয়তো উপর থেক সবে দেখছেন আর খুশী হচ্ছেন সবাইকে দেখে,,,,,,, মেয়েদের  প্রাণের থেকে বেশী ভালোবাসতেন,,,,,,সবসময় বলতেন আমি আগে ছেলেকে বিয়ে দেবো  ব‌উ আনবো তারপর আমার ছোট মেয়েকে বিয়ে দেবো ,,,,,,ঘরে মেয়ে এনে তারপর ছোট মেয়েকে বিয়ে দেবে এটা সব সময় বলতো ,,,,,,,,,কিন্ত সময় যে বড় বলবান,,,,,
অপেক্ষা করতে চেয়েছিলো পরিতোষ বাবু কিন্ত সময় যে তাকে করতে দিলো না,,,,, ভেবেছিলো ছেলেটা একটা ভালো চাকরী পাওয়ার পর নতুন বাড়ীতে যাবে ছেলেকে বিয়ে করাবে ঘরে ব‌উ আনবে কিন্ত সব আশা আশায় রয়ে গেলো ,,,,,,,,,এইদিকে পরিতোষ বাবুর ছেলে চাকরীর জন্য খুব দৌড়াদৌড়ি করছে কোথাও যখন কিছু হচ্ছে না তখন সে এক রিপ্রেজেনটিভের চাকরীর জন্য ইনটারভিউ দেবে  ,,,,,কিন্ত বাবার ভীষন অপছন্দ ছিলো রিপ্রেজেনটিভের চাকরী,,,,,,,,,বাইরে দৌড়াদৌড়ি করতে হবে ছেলের অনেক কষ্ট হবে সেটা কখন‌ও চাননি ,,,,,তাই 
ভগবান সেটাই চেয়েছেন যেদিন ইনটার ভিউ ছিলো তার আগের দিন পরিতোষ বাবুর ব্রেইন ষ্ট্রোক হয়ে পুরো ব্রেইন হ্যামারেজ হয়ে তিনদিন হসপিটাল থেকে উনি মারাযান,,,,,,,,কিন্ত এমনি অদৃষ্টের খেলা খেলেছে সময় ,,,,
বুজিয়ে দিয়েছেন বাবা মা ইচ্ছে করলে সন্তানদের জন্য কি করতে পারে ,,,,,,পরিতোষ বাবুর রির্টায়াড মেন্ট হতে কয়েক মাস বাকী ছিলো কিন্ত সেই কয়েক মাস আর অপেক্ষা করতে পারলেন না কারন তাহলে অনেক দেরী হয়ে যাবে যে,,,,,,,,,ছেলেকে যে তাহলে আর চাকরীটা দেওয়া যাবে না,,,,,
  মা বোন ছিলো  তাদের দেখা শোনার ভার ছেলের উপর পড়াতে চাকরীটা ছেলেকে দিলেন রেলের ঘর থেকে,,,,,,,, 
ছোট বোনকেও বিয়ে দিয়েছে,,,
আজ পরিতোষ বাবুর  ছেলে খুব ভালো  পোষ্টে আছেন  বিয়ে হয়েছে ব‌উ এসেছে এক ছেলে  আর মাকে নিয়ে সংসার করছে,,,,,,,,, সুন্দর বাড়ীটাও হয়েছে কিন্ত পরিতোষবাবুর আর থাকা হয়নি তবে তিনি আজ উপর থেকে দেখে খুব খুশী যে তার  সন্তান ও পরিবার সবাই ভালো আছেন,,,,,,,,,
কিছু অপেক্ষা আমাদের জীবনে অনেক  লম্বা হয়ে যায়  যেটা আমাদের কারো হাতে থাকে না সেটা সময়ের উপর ছেড়ে দিতে হয় ,,,,,,,,,,,সময় যে আমাদের জন্য অপেক্ষা করে না।

©️উমা মজুমদার
৪/৫/২০২০

মন্তব্যসমূহ

এই ব্লগটি থেকে জনপ্রিয় পোস্টগুলি

সময় বা পরিস্থিতি মানুষকে অনেক কিছু শিখিয়ে দেয় ,,,,কিন্ত অনেক সময় সময়ের উপর সব ছেড়ে দেওয়া টাও বোকামি বলে মনে হয়,,

মূল্যবোধ

সব ভালোবাসার নাম হয় না