পোস্টগুলি

মিনি সাগা,,,মুখোশের আড়ালে

হটাৎ  করে  সেদিন  রুমির  সথে  দেখা  হলো ,,,, যে রুমিকে আমি চিনি ,,,, সেই রুমিকে আমি সেদিন চিনতেই পারলাম না ,,,, প্রাণাজ্জল রুমি কোথায়  যেন হারিয়ে গেছে,,,,,আগের চেহারা আগের হাসি খুশী রুমিকে কোথাও খুঁজে পায়নি,,,,,  জানিস রমা ,, যাকে ভালোবেসে নিজেকে সোঁপে দিয়েছিলাম সে যে ধোকাবাজ বেরোলো,,,  মুখোশের আড়ালে এমন চেহেরা ভাবতেই পারিনি ।

হোলি

রঙের উৎসবে হোলি খেলে সব ভুলে রঙ মাখে গালে। খোকা খুকিরাও মেতেছে দেখো কেমন রঙের খেলায়  ফাগুনের ফাগে আবির  ছড়ায় বসন্ত বেলায় ছকে বাঁধা জীবনটায়  একটু খুশীর ছোঁয়া স্মৃতির পাতায় রঙ মাখে  ফাগুন হাওয়া।

ক্ষনিকের আনন্দ

শ্রুতি  এসে বারবার মাকে তাড়া দিচ্ছে কত দেরী হবে,, , কিন্ত সম্পা  হারিয়ে যাচ্ছে  নিজের অতীতে। সব স্মৃতি তাজা হয়ে গেলো। সকাল  থেকেই ব্যস্ত ,  পিকনিকের তৈয়ারী চলছে মেয়ের জন্য,,,। আবদার  করে  বলেছে, লুচি  আলুরদম  করে দিবে।, কলেজ  জীবনে    সম্পা নিজের  মাকে দিয়ে এমনটাই করিয়ে নিতো সত্যি  সময়  কেমন  কথা  বলে  যায়,,,, ।

জাগো নারী

খুলো পরাধীনতার শিকল মুছে নাও চোখের জল  শিকলে বাঁধা বন্দী জীবন  মানায় না নারীকে এখন নারী শক্তিতে জাগাও মনোবল‌ নারী বলে  হবে না  দুর্বল অনেক হয়েছে শাসন শোষন বন্ধ হোক নারী  নির্যাতন ঝড় উঠুক নারী স্বাধীনতার সসন্মানে  নারীর বাঁচার অধিকার।

চা য়ের অনুভূতি

চায়ের অনুভূতি উমা মজুমদার ১৫/৩/২১ স্বাদে গন্ধে  ভরপুর, একটি কুঁড়ি দুটি পাতা নিপুণ হাতের ছোঁয়ায় সৃষ্টি ,চা য়ের সার্থকতা। দিনে রাতে চাহিদা ,হাটে বাজারে ফুটপাতে মাটির ভাঁড়ে,  চা য়ের তৃপ্তি  চলতে ফিরতে। বেঁচে থাকার আশ্রয় চা বানিয়ে পেট চালায় এক কাপ চা য়েতে সারাদিনের  ক্লান্তি মেটায়  ব্যস্ত জীবননের নিত্যসঙ্গী দিনের শুরু চা দিয়ে চা য়ে আছে অনেক গুণ ,লেবু চা  আদা দিয়ে  গল্প কথায়  আসর জমে, চা য়ের  বেশ আড্ডাটা ভালোবাসার মিষ্টি অনুভূতি, থাকে চা য়ের চুমুকটা।

নারী নয় অবলা

শ্রেষ্টত্বের মুকুট আজ তোমার মাথায় ধৈর্যে,শৌর্যে পরিচয় ,নারীর গরিমায়  সভ্যতার আড়ালে লড়ে যাও প্রতিদিন কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে চলছে পুরুষের সমান নারী তোমার কত রূপ তুমি এক জননী   তুমি  হলে সকল সন্তানের গর্ভধারিণী মাতৃরূপে  করুণাময়ী মমতাময়ীর ভান্ডার  দিচ্ছো পরিচয় তোমার নিজস্বতার দশহাতে ঘরে বাইরে সামলাও ,সমান তালে অপমানিত লাঞ্ছিত,তবু তুমি নারী বলে হবে না দিবস পালন, একদিনের জন্যে নারীর সন্মান হোক প্রতিদিনের প্রতিক্ষনে তুমি নারী ,তুমি সৃষ্টি  সংসারের ঢাল তুমি স্ত্রী ,কন্যা ,ভগিনী, মাতৃরূপে  তোমায় নমি নারীর সন্মান  ঘরে ঘরে ,নারী নয় অবলা পরাধীনতার শিকল খুলো ,পড়ো  জয়ের মালা।

নববধূ

নব বধূ সাজে  নতুন স্বপ্ন সাজিয়ে বৌ এলো আপন ঘরে পা রাঙিয়ে  ভুল ভ্রান্তিতে ভরা  জীবন আজ থেকে তবুও চলতে হবে জানতে হবে সবাইকে স্নেহের বাঁধন ছেড়ে এলে বাবার বাড়ী ভালোবেসে রাখবে তুমি শশুরবাড়ী পরকে আপন করে ভালোবাসা দিও দুঃখ কষ্ট আসুক যত মানিয়ে নিও।